একটি নক্ষত্রের খোঁজে ও অন্যান্য ॥ আয়েশা মুন্নি


একটি নক্ষত্রের খোঁজে

একটি নক্ষত্রের খোঁজে শত আলোকবর্ষ দূরে
কতবার দৃষ্টিকে রেখেছি নিশুতি রাতে
উল্কাপাতে কতবার ঝরেছে তাজা রক্ত…
আমার পরিভ্রমণ বারবার ব্যর্থ হয়েছে…।

একটি নক্ষত্রের খোঁজে…
চেতনায় জাগে অব্যর্থ ইচ্ছা
কষ্টে মাখা রাত খোঁজে মন,
এ আঁধার রাতে সেই নক্ষত্রের আলো চাই।

বিচ্ছুরিত স্বপ্নগুলো উষ্ণীয় প্রস্রবণে
বারবার জমাট বাঁধে মনের তোরণে,
আশা দুরাশার দেয়াল ডিঙিয়ে আজও খুঁজি
আমার প্রিয়- মানবিক একটি নক্ষত্র।

অতঃপর, অতিক্রান্ত সময়ের সফল অভিযান
সাধনাময় নক্ষত্রে নতুন সকাল সূচিত…
মেঘ গলে চাঁদ ওঠা এ আমার পৃথিবী নয়
অসীম শূন্যতায় আমি এখন ভীন গ্রহবাসী।


প্রমোদ বিহার

আকাশের উদ্যানে
রৌদ্রছায়ার পদাবলিতে
প্রত্নতাত্ত্বিক প্রমোদ সময়ে
সবুজ পাতার শুভেচ্ছাস্নানে
জারিত দিনপঞ্জি।
আত্মার অকৃত্রিম আবিরে রাঙানো অস্তরাগ সূর্যটাও
প্রকৃতির প্রমোদ তরীতে,
যখন মতিভ্রমে শব্দকুঞ্জে
অন্তহীন পদচ্ছাপে মৌণ প্রার্থনারত।
প্রত্নতাত্ত্বিক প্রমোদ সময়ে
জলপাই রঙা বিকেলের মগ্নতায়
ঐ আকাশের এক টুকরো মেঘ হতে চেয়ে
উড়িয়েছি সুখ শাড়ির আঁচলে। ঝড় চাই, ঝড় দাও
বজ্র চাই না, বৃষ্টি চাই না…
ভষ্ম উড়িয়ে সবটুকু ভালবাসা আমার চাই,
ভ্রমের মতিভ্রম হোক তোমার আমার প্রমোদ বিহারে।


উড়নচণ্ডী মন

তোমাকে কোথায় খুঁজি বলো
তুমি তো উড়নচণ্ডী…
চৈতী হাওয়ায় দোল দিয়ে যাও
বৈশাখে আসো প্রলয়ে,
রুক্ষতা নিয়ে জ্যৈষ্ঠে এলে
চৌচির মনোরথ।

তুমি উজানি স্রোতে এলেই যদি
তবে ঘোলা জলে কেন এলে?
না হয় পলি প্রেম নিয়েই এসো
কেন নিয়ে এলেবেলে?
আবার যদি আসো শ্রাবণে
তবে প্রেম প্লাবন নিয়ে এসো।

আমি ভাদ্র, আশ্বিন
আর কিছু চাই না,
চাই না হেমন্ত, শীত…
তবে আসতে পারো ফের
বসন্ত নিয়ে….
ফুল পাখি আর গীত।