একাকিত্ব…বিষণ্নতার দোসর ॥ তটিনী দত্ত


একাকিত্ব এক অনুভূতি। জীবনের কোন না কোন সময় এই অনুভূতি স্পর্শ করে যায়নি এমন মানুষের সংখ্যা বিরল। একাকিত্বের কি কোন সংজ্ঞা হয়? যদি হয়, সেটা বোধহয় অনেকটা এরকম হবে-একাকিত্ব এমন এক অনুভূতি, যখন একজন মানুষ তার পছন্দমতো সামাজিক যোগাযোগ বা নির্ভরতার জায়গা খুঁজে পায় না, `The fact of being without companio’ একাকিত্ব মানে ভেতর থেকে নিজেকে ভেতর থেকে নিজেকে একা মনে হওয়া। এর সাথে জড়িয়ে থাকে বিষণ্নতা। একাকিত্ব মানে দৈহিক ভাবে একা থাকা নয়, অনেকের মাঝে থেকেও ভীষণভাবে নিজেকে এক অনুভব করা, ফাঁকা অনুভব করা। আচরণগত কিছু বহিঃপ্রকাশ থেকেও অনেক সময় বোঝা যায় মানুষটি একাকিত্বে ভুগছেন। যেমন-একাকিত্বে ভুগলে আত্মবিশ্বাসের অভাব হয়, জীবনের প্রতি অসন্তোষ বেড়ে যায়, উৎকণ্ঠা ও বিষণ্নতা বোধ হয়। অনেক সময় তীব্র একাকিত্ব বোধ থেকে আত্মহত্যার ইচ্ছাও হয়।
পৃথিবীতে ১৮টি দেশের মধ্যে সমীক্ষা করে দেখা গেছে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের কিছু দেশে একাকিত্বের হার সাধারণের থেকে অনেক বেশি। যুক্তরাজ্যে ১০ জন মানুষের মধ্যে ১ জনের কোন বন্ধু নেই। ৫ জন মানুষের মধ্যে ১ জন অনুভব করেন তাকে কেউ ভালোবাসে না। এই চিত্রটা থেকে এটা বলাই যায় যে টেকনোলজিতে উন্নত দেশগুলির মানুষ বেশি একাকীত্বে ভোগেন।
একাকিত্ব মানে কি তাহলে ভালবাসাহীনতা নাকি নিঃসঙ্গতা? শুধুমাত্র আমাকে কেউ চায় না বা আমাকে কেউ ভালোবাসে না এই অনুভব থেকেও তো মানুষ নিজেকে একা অনুভব করে। এই অনুভব তো বিষণ্নতা বা অবসাদের ক্ষেত্রেও হয়। একাকিত্বের সাথে বিষণ্নতা বা অবসাদের এক গভীর সম্পর্ক আছে। কোন কোন সময় তো এও বলা হয়ে থাকে Depression is a disease of loneliness.
দীর্ঘদিন ধরে একাকিত্বে ভুগলে একজন ব্যক্তির মধ্যে বেশ কিছু শারীরিক ও মানসিক সমস্যা দেখা দিতে পারে। যেমন-(ক) শারীরিক সমস্যা: হার্টের সমস্যা, উচ্চ রক্তচাপ জনিত সমস্যা, স্মৃতিভ্রংশ জনিত সমস্যা, চিন্তন ক্ষমতার সমস্যা, ঘুমের সমস্যা ইত্যাদি।
(খ) মানসিক সমস্যা: বিষণ্নতা, মানসিক চাপ, আত্মবিশ্বাসের অভাব, রাগ, আত্মহত্যার ইচ্ছা ইত্যাদি।
একাকিত্বের সাথে বিষণ্নতা বা অবসাদের সম্পর্ক গভীর হলেও একথা মনে রাখা দরকার কোন মানুষ একা মানেই সে বিষণ্ন থাকবে, তা নয়। আবার যিনি বিষণ্নতা বা অবসাদে ভুগছেন, তিনি একা নাও হতে পারেন। বিষণ্নতা বা অবসাদ মস্তিষ্কের মধ্যে ঘটে যাওয়া এক ধরণের নিউরো কেমিকেলের ভারসাম্যহীনতা। আর একাকিত্ব হলো অন্য কারো সাথে যোগাযোগহীনতার ফলে তৈরি হওয়া এক বিষণ্ন অনুভূতি। যা শেষ পর্যন্ত মস্তিষ্কে নিউরো কেমিকেলের ভারসাম্যে গণ্ডগোল ঘটাতে পারে। অনেকেই একাকিত্বের সাথে একা থাকাকে গুলিয়ে ফেলেন। একা থাকা (Isoltion) আর একাকিত্ব (Loneliness) এক না। অবসাদগ্রস্ত অবস্থায় একজন মানুষ বাইরের জগৎ থেকে নিজেকে আলাদা করে নেয়।

একাকিত্ব কাটানোর কিছু উপায়-
(ক) নির্দিষ্ট লক্ষ্য তৈরি করে সেদিকে এগুনো
(খ) অন্যদের সাহায্য করা
(গ) বিভিন্ন পোষ্যদের নিজের কাছে রাখা
(ঘ) বিভিন্ন পছন্দের কাজে নিজেকে যুক্ত রাখা ও পছন্দের মানুষদের সাথে সময় কাটানো
(ঙ) সামাজিক বিভিন্ন কাজে যুক্ত থাকা
(চ) মেলামেশার পরিধি বাড়ানো।
(ছ) সর্বশেষ বা সর্বপ্রধান ভালবাসা, নিজেকে ভালোবাসা, অন্যদের ভালোবাসা পাওয়া।
শেষ পর্যন্ত ‘বিচ্ছিন্ন বৃষ্টির ফোঁটার মতো নিঃসঙ্গ’ একাকিত্বের শেষ প্রান্তে দাঁড়িয়ে আছে সৃষ্টিশীলতা। এখানেই একাকিত্বকে হারিয়ে দিয়েছি আমরা।