চিঠি ও অন্যান্য ॥ সোনালী ইসলাম




চিঠি

লিখছি তোমায় প্রতিদিনই,
মনের কথা জানাইনি …
কখনো কি পড়বে চিঠি?
তোমার চোখের স্পর্শ পেয়ে
উঠবে চিঠি কান্না হয়ে..
বুঝবে তখন,
মনের মাঝে আমিই আছি, হারাইনি।


বোঝা

উড়তে চেয়ে অনিশ্চিতের পথে
ডানা মেলে মুখ উঁচিয়ে দেখি,
একা আমি উড়ব কেমন করে
ছায়া আমার আটকে আছে একি।

মনটা যতই উড়ুক আকাশ জুড়ে
রক্তাভ মেঘ আকাশ জুড়ে ডাকে,
হাতছানি দিক দিনবদলের রঙ
স্তব্ধ দু’পা মাটির পরেই থাকে।

চাইছি আমি সত্যি তোমায় বলি
চাইছি যেতে তোমার কাছে উড়ে,
কিন্তু আমার নিজের চোরাবালি
জড়িয়ে থাকে আমার দু’পা জুড়ে।

ডানা দুটো শুধুই বহন করি
স্বপ্ন দেখি আকাশে উড়বার,
ডানা দুটো শুধুই এখন বোঝা
সেটাই আমায় বোঝায় বারে বার।।


প্রতীক্ষা

একান্ত দ্বীপে একাকী আমি অর্থহীন প্রতীক্ষায়,
বাতিঘর নেই, নেই কোন জাহাজ মাস্তুল,
ফেলে আসা তরী ভেসে গেল উত্তাল জলে,
যাক…
নিরন্তর আগ্রাসী মেঘে অশনি সংকেত, তবু
আমি স্থির
দ্বিধাহীন
স্বপ্নহীন
নির্মোহ অপেক্ষারত,
জানি
কোন এক কোটালের বানে
দেখা পাব তার।


খালি বেঞ্চ

একদিন চলে যাব জানি,
মেপলের পাতা ঝরা দিনে,
সময়ের এক পলও আমি
রাখিনি তো কড়ি দিয়ে কিনে।

সে যাওয়া, ফিরে আসা নয়,
চিরতরে ভুলে যাওয়া সেই,
খালি বেঞ্চ খালি পড়ে রয়
বসবার কেউ আর নেই।।


তুমি

তুমি চাইলেই
হৃদয় হাজির
তুমি বললেই
আমি মুসাফির
চলো শুরু হোক পথ চলা।